চট্টগ্রাম   মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০  

শিরোনাম

সাবেক মহকুমা পটিয়ার সমৃদ্ধ আলোকিত ইতিহাস

মুহাম্মদ রুশনী মোবারক, পটিয়া :    |    ০২:৩৯ পিএম, ২০২০-০৮-২৫

সাবেক মহকুমা পটিয়ার সমৃদ্ধ আলোকিত ইতিহাস

পটিয়া উপজেলাঃ
কথিত আছে, পটুয়া থেকে পটিয়া। পটিয়া চট্টগ্রামের একটি অন্যতম উপজেলা, চট্টগ্রামের সবচেয়ে সমৃদ্ধ উপজেলা পটিয়া। লোকমুখে সবচেয়ে বেশী প্রচলিত ধারণা থেকে জানা যায় 'পটুয়া' থেকে পটিয়া উপজেলার নামকরণ করা হয়েছে। একসময় বহুসংখ্যক তাঁতীর বসবাস ছিল এখানে এবং তারা কাপড় বুনে বাজারজাত করতো !
বাংলাদেশের অন্য উপজেলার সংঙ্গে এ উপজেলার সবচেয়ে বড় একটি পার্থক্য হচ্ছে এটি একটি সাবেক ' মহকুমা ' শহর। ব্রিটিশ সরকার দক্ষিণ-চট্টগ্রামের কেন্দ্র পটিয়ায় ১৯১০ সালে পাঁচজন মুন্সেফ নিয়ে মহকুমা মুন্সেফ আদালত স্থাপন করেন এবং তদানিন্তন পাঁচ থানার প্রশাসনিক কার্য পরিচালনার জন্য একজন সার্কেল অফিসার (ডেপুটি ম্যাজিষ্ট্রেট) নিয়োগ করেন। উনবিংশ শতাব্দীর শেষ দিকে পটিয়ার ও রাউজানের কিছু অংশ নিয়ে রাঙ্গুনিয়া থানা গঠিত হয়। পরবর্তীতে পটিয়াকে
ভেঙ্গে ১৮৯৮ সালে আনোয়ারা, ১৯৩০ সালে বোয়ালখালী ও ১৯৭৬ সালে চন্দনাইশ থানা গঠিত হয়। ১৯৫৮ সালে পাকিস্তান আমলে পটিয়া মহকুমা হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে। বাংলাদেশ সৃষ্টির পর সকল মহকুমা শহরকে জেলায় রুপান্তর করা হয়, একমাত্র পটিয়া মহকুুুমাকে কোন এক অদৃশ্য কারনে জেলা থেকে বঞ্চিত করা হয়, পরবর্তী'তে ১৯৮৪ সালের ১লা ফেব্রুয়ারি পটিয়া উপজেলা হিসাবে স্বীকৃতি পায় । 
সাবেক মহকুমা পটিয়াকে জেলা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে পটিয়া জেলা বাস্তবায়ন পরিষদের সাবেক সম্মানিত  সভাপতি পটিয়ার সর্বজন শ্রদ্বেয় বিশিষ্ট চিকিৎসক, বৃহৎ হৃদয়, সৎ ও অসাধারন ব্যক্তিত্বের অধিকারী জনাব ডাঃ জহিরুল হক মৃত্যুর আগ পর্যন্ত লড়াই করে গেছেন, এই দাবী আদায়ের জন্য বর্তমান প্রজন্মও সােচ্চার। 
অবস্থান ও সীমানাঃ
চট্টগ্রাম জেলা সদর থেকে ৩৫ কিলোমিটার পূর্বে চট্টগ্রাম জেলার দক্ষিণাংশে ২২°১৩´ থেকে ২২°২১´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯১°৪৭´ থেকে ৯২°০৭´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ জুড়ে পটিয়া উপজেলার অবস্থান। এ উপজেলার দক্ষিণে আনোয়ারা উপজেলা ও চন্দনাইশ
উপজেলা,  পূর্বে চন্দনাইশ উপজেলা ও রাঙ্গুনিয়া উপজেলা,  উত্তরে বোয়ালখালী উপজেলা , কর্ণফুলি নদী ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের চান্দগাঁও
থানা এবং পশ্চিমে চট্টগ্রাম সিটি
কর্পোরেশনের কর্ণফুলি থানা অবস্থিত। পটিয়া উপজেলার আয়তন ২৪৭.৩৮ বর্গ কিলোমিটার।
জনসংখ্যা -
২০১১ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী পটিয়া উপজেলার জনসংখ্যা ৩,৪৪,৭৮৩ জন।
পুরুষ : ১,৭৬,০০৮ জন, মহিলা :  ১,৬৮,৭৭৫ জন
এ উপজেলার লোকসংখ্যার- ৮১% মুসলিম, ১৭% হিন্দু ও ২% বৌদ্ধ ও অন্যান্য
ধর্মাবলম্বী।

প্রশাসনিক কাঠামো - পটিয়া উপজেলায়
১ টি পৌরসভা, ৯ টি ওয়ার্ড, ১৭ টি ইউনিয়ন পরিষদ, ১২০ টি মৌজা ও ১২৪ টি গ্রাম পটিয়া থানার আওতাধীন।

পৌরসভা - পটিয়া । ইউনিয়ন সমূহ - ৪নং কোলাগাঁও, ৫নং হাবিলাস দ্বীপ, ৬নং কুসুমপুরা, ৭নং জিরি, ৮নং কাশিয়াইশ, ৮নং (ক) আশিয়া, ৯নং জঙ্গলখাইন, ৯নং (ক) বড়লিয়া, ১০নং ধলঘাট, ১১নং কেলিশহর, ১২নং হাইদগাঁও, ১৩নং দক্ষিণ ভূর্ষি, ১৪নং ভাটিখাইন, ১৫নং ছনহরা, ১৬নং কচুয়াই, ১৭নং খরনা ও ১৯নং (ক) শোভনদণ্ডী। নিচের ৫টি ইউনিয়ন এখন নবগঠিত  কর্ণফুলি উপজেলা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কর্ণফুলি থানার আওতাধীন।
১নং চরলক্ষ্যা, ১নং (ক) জুলধা, ১নং (খ) চর পাথরঘাটা, ২নং বড় উঠান ও ৩নং শিকলবাহা।

উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনঃ
উপজেলা চেয়ারম্যান-মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী , উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা - ফয়সাল আহমেদ, সংসদীয় আসন- জাতীয় নির্বাচনী এলাকা ২৮৯ নং ও চট্টগ্রাম-১২ পটিয়া উপজেলা ।
সংসদ সদস্য: মাননীয় হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী।  ( বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ )।

শিক্ষাঃ
পটিয়া উপজেলার শিক্ষার হার ৬১.৮১%, ১ টি টিচার ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, ৮টি কলেজ, ৪৯টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ১১টি মাদ্রাসা রয়েছে।
উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে- পটিয়া সরকারী কলেজ, খলিলুুর রহমান মহিলা ডিগ্রী কলেজ, 
হুলাইন ছালেহ নূর ডিগ্রী কলেজ, খলিল মীর ডিগ্রী কলেজ, পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, আবদুর রহমান সরকারী বালিকা উচ্চ
বিদ্যালয়, আবদুস সোবহান রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়, চিটাগাং আইডিয়াল হাই স্কুল,
শশাঙ্কমালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, শাহচান্দ আউলিয়া কামিল মাদ্রাসা, আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়া
মাদ্রাসা, ও আল জামিয়া (জিরি মাদ্রাসা) শিক্ষা।

ধর্মীয় উপাসনালয়ঃ 
৪৭৬ টি মসজিদ, ৩৭ টি মন্দির, ২২টি বৌদ্ধ বিহার ও ২টি গীর্জা রয়েছে।

কৃতী ব্যক্তিত্ব ঃ 
আবদুর রহমান (১৯০২-১৯৭৭) জন্ম - পটিয়া সদর , শিক্ষাবিদ ও লেখক।  আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ (১৮৭১-১৯৫৩) জন্ম - সূচক্রদণ্ডী , সংগ্রাহক ও লেখক। আহমদ শরীফ (১৯২১ - ১৯৯৯) জন্ম - সূচক্রদণ্ডী, শিক্ষাবিদ,সাহিত্য
সমালোচক, লেখক ও গবেষণামূলক প্রবন্ধকার। কালীপদ ভট্টচার্য,  মৃত্যু -১৯৭৮ জন্ম - ধলঘাট গ্রাম, সাহিত্যিক। জীবন আলী (জীবন পণ্ডিত)
জন্ম - খানমোহনা গ্রাম, সঙ্গীতজ্ঞ ও পুঁথি
লেখক। নবীনচন্দ্র দাস (১৮৫৩-১৯১৪) জন্ম - আলমপুর গ্রাম, সাহিত্যিক। নির্মলকুমার সেন (১৮৯৮-১৯৩২) সূর্য সেনের বিপ্লবী দলের সদস্য। পূর্ণেন্দু দস্তিদার (১৯০৯-১৯৭১) জন্ম - ধলঘাট গ্রাম, রাজনীতিবিদ ও লেখক। প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার (১৯১১-১৯৩২) জন্ম - ধলঘাট গ্রাম, সূর্য সেনের বিপ্লবী
দলের সদস্য। বিপিনবিহারী নন্দী (১৮৭০-১৯৩৭)
জন্ম - নাখাইন গ্রাম, কবি। শশাঙ্কমোহন সেন (১৮৭২-১৯২৮) জন্ম - ধলঘাট গ্রাম, শিক্ষাবিদ, কবি ও
সাহিত্য সমালোচক। অন্নদাচরণ খাস্তগীর (১৮৩০ - ১৮৯০) জন্ম - সুচক্রদণ্ডী , খ্যাতনামা চিকিৎসক ও গবেষণামূলক প্রবন্ধকার। অপূর্ব সেন ভোলা (১৯১৫ - ১৯৩২) জন্ম. সূচক্রদন্ডী , সূর্য সেনের
বিপ্লবী দলের সদস্য। ১৯৩২ সালের ১৩ জুন পটিয়ার ধলঘাটে ইংরেজ সিপাহীদের গুলিতে শহীদ হন। অর্ধেন্দু দস্তিদার মৃত্যু - ১৯৩০ জন্ম - ধলঘাট গ্রাম, সূর্য সেনের বিপ্লবী দলের সদস্য। জালালাবাদ পাহাড়ে
ব্রিটিশ সৈন্যের সাথে সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ
হন। আলী রজা (কানু শাহ ফকির) জন্ম - ওশখাইন গ্রাম, যোগ, সঙ্গীত ও আধ্যাত্মিক বিষয়ে বহু গ্রন্থের রচয়িতা। কেদারনাথ দাশগুপ্ত (১৮৭৮ - ১৯৪২)
জন্ম - ভাটিখাইন গ্রাম, ব্যারিস্টার,
লেখক ও স্বদেশী আন্দোলনে উদ্বুদ্ধ বুদ্ধিজীবী। আবদুল গফুর হালী (১৯২৯-২০১৬) জন্ম-রসিদাবাদ, সঙ্গীত বিশেষজ্ঞ ও  আসকর আলী পণ্ডিত (১৮৪৬-১৮৯২) স্থায়ী বসতি: পটিয়ার শোভনদণ্ডী গ্রামে। 
জনাব সাইফুল আলম মাসুদ (এস আলম)
বিশিষ্ট শিল্পপতি, দানবীর, বর্তমান সময়ের পটিয়ার জীবন্ত কিংবদন্তী। 

দর্শনীয় ও তীর্থ স্থানঃ
সাতগাছিয়া দরবার, বৌদ্ধ তীর্থ চক্রশালা মন্দির, আমীর ভান্ডার দরবার, ঠেগরপুনি বুড়াগোঁসাই মন্দির, মুসা খাঁ মসজিদ, বড়লিয়া দরবার শরীফ, বুড়া কালী মন্দির,  মহিরা ক্ষেত্রপাল, ধলঘাট প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার ট্রাস্ট, বুদবুদি ছড়া, মুরালী নদী, হাইদগাঁও পাহাড়, কেলিশহর পাহাড়, ধলঘাট চন্দ্রকালাপুল, হাইদগাঁও গুচ্ছি গ্রাম। 

পটিয়ার ইতিহাসঃ
ষষ্ঠ শতকে পটিয়াসহ চট্টগ্রাম সমতট রাজ্যভুক্ত হয়।
সপ্তম শতক অবধি সমতটের খড়ুগ রাজবংশের রাজাদের দ্বারা শাসিত হয়। অষ্টম শতকে ধর্মপালের রাজত্বকালে তা পাল সাম্রাজ্যভুক্ত ছিল। নবম শতকে পটিয়াসহ চট্টগ্রাম আবার হরিকেল রাজ্যভুক্ত হয়।দশম শতক থেকে সপ্তদশ শতকের মধ্যবর্তী সময় অর্থাৎ ১৬৬৬ সন পর্যন্ত সাময়িক বিরতি থাকলেও চট্টগ্রাম সমগ্র দক্ষিণাঞ্চল আরাকান রাজ্যভুক্ত ছিল।
বৌদ্ধযুগে চট্টগ্রাম ‘চক্রশালা’ নামে বহির্বিশ্বে পরিচিত ছিল। এ চক্রশালা পটিয়া সদর থেকে দুই মাইল দক্ষিণে অবস্থিত। আরাকান শাসকরা চক্রশালায়
তাদের রাজধানী স্থাপন করেন। রাজা মেং ফালোং (সেকান্দার শাহ) এর শাসনকালে (১৫৭১-৯৩ খ্রি.) ‘চক্রশালা’ রাজধানী ছিল যেখানে চট্টগ্রামের
দক্ষিণাংশ ও কক্সবাজার তাঁর দখলে ছিল। পটিয়াসহ পুরো চট্টগ্রাম মোগল সাম্রাজ্যভুক্ত হয় সম্রাট আকবরের বাংলা বিজয়ের আরো নববই বছর ১৬৬৬ সনে তাঁর প্রপৌত্র সম্রাট আওরঙ্গজেবের আমলে।১৯৩০ এর দশকে এখানে ব্রিটিশ-বিরোধী বিপ্লবী, বিশেষতঃ যুগান্তর দল ও চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুন্ঠনঅভিযানের সাথে জড়িত বিপ্লবীরা এখানে সক্রিয় ছিলেন। ১৯৩০-এর দশকে কালারপোল সংঘর্ষে বিপ্লবী স্বদেশ রায় ইংরেজ সেনাদের গুলিতে
নিহত হন। ১৯৩৩ সালের ফেব্রুয়ারীতে গৈড়লা গ্রামে বিপ্লবী দলের অধিনায়ক সূর্যসেনও ব্রজেন্দ্রসেন ইংরেজ সেনাদের হাতে ধরা পড়েন। ব্রিটিশ শাসনের আগে এতদঞ্চল আরাকান আমলে ‘চক্রশালা’, মোগল আমলে ‘চক্রশালা পরগণা’ এবং ব্রিটিশ শাসনের প্রথম দিকে ‘চাকলা’ নামেই পরিচিত ছিল।
মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ১৯৭১ সালে পাকবাহিনীর দুটি বোমারু বিমান পটিয়া সদরে কয়েকদফা বোমা হামলা
চালিয়ে অনেক বেসামরিক লোককে হত্যা করে। ১৯৭১ সালের ৩ মে মুজাফফরাবাদ গ্রামে পাকবাহিনী ও রাজাকার-আলবদর সদস্যরা অসংখ্য ঘরবাড়ী জ্বালিয়ে দেয় এবং নির্বিচারে গণহত্যা চালায়।

যোগাযোগ ব্যবস্থা: 
পটিয়া উপজেলায় যোগাযোগের প্রধান সড়ক চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক। সব ধরণের যানবাহনে যোগাযোগ করা যায়। এছাড়া উপজেলার অভ্যন্তরে রয়েছে ৫০ কিলোমিটার পাকারাস্তা, ৪২ কিলোমিটার আধা-পাকারাস্তা, ৫১০ কিলোমিটার কাঁচারাস্তা, ১৬ কিলোমিটার রেলপথ ও ৪টি রেলস্টেশন।

 

রিটেলেড নিউজ

তথ্যমন্ত্রীর সুস্থতা কামনায় রাঙ্গুনিয়া পৌরসভায় দোয়া মাহফিল

তথ্যমন্ত্রীর সুস্থতা কামনায় রাঙ্গুনিয়া পৌরসভায় দোয়া মাহফিল

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি : : করোনা আক্রান্ত তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ’র সুস্থতা কামনায় রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার আয়োজনে খতমে কোরআ...বিস্তারিত


রাঙ্গুনিয়ায় শিশু বলৎকারের অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার 

রাঙ্গুনিয়ায় শিশু বলৎকারের অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার 

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি : : রাঙ্গুনিয়ায় শিশু (১০) বলৎকারের অভিযোগে নাছির উদ্দিন নামে এক কওমী মাদরাসা শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছ...বিস্তারিত


রামুতে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী ও বাঁক প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের শিকার

রামুতে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী ও বাঁক প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের শিকার

রামু প্রতিনিধি : : কক্সবাজারের রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী এবং কচ্ছপিয়া ইউনিয়নে বাঁক ...বিস্তারিত


চকরিয়ায় ছোট বোনের সাথে অভিমান করে ভাইয়ের আত্মহত্যা

চকরিয়ায় ছোট বোনের সাথে অভিমান করে ভাইয়ের আত্মহত্যা

চকরিয়া প্রতিনিধি : : কক্সবাজারের চকরিয়ায় ছোট বোনের সাথে অভিমান করে শহীদুল ইসলাম (২০) কিটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছেন এক ছ...বিস্তারিত


ফটিকছড়িতে ভোটকেন্দ্রে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ২

ফটিকছড়িতে ভোটকেন্দ্রে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ২

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি : : ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ফটিকছড়ি উপজেলার সুয়াবিল ইউনিয়নের একটি ভোটকেন্দ্রে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই...বিস্তারিত


লোহাগাড়ায় র‌্যাবের হাতে ১৭ হাজার ইয়াবাসহ আটক ১

লোহাগাড়ায় র‌্যাবের হাতে ১৭ হাজার ইয়াবাসহ আটক ১

লোহাগাড়া প্রতিনিধি : : চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের লোহাগাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৭ হাজার ২৩৫ পিস ইয়াবা এক মাদক ব্যবসা...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

আসন্ন পটিয়া পৌর নির্বাচনে দল চাইলে মেয়র পদে প্রার্থী হবেন তৌহিদুল আলম

আসন্ন পটিয়া পৌর নির্বাচনে দল চাইলে মেয়র পদে প্রার্থী হবেন তৌহিদুল আলম

পটিয়া প্রতিনিধি : : বাংলাদেশ ফ্রেশ ফ্রুটস ইমপোর্টার্স এসোসিয়েশনের কেন্দ্রিয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক পটিয়া ...বিস্তারিত


চন্দনাইশের বসতঘরে দূর্ধর্ষ চুরি 

চন্দনাইশের বসতঘরে দূর্ধর্ষ চুরি 

মোহাম্মদ কমরুদ্দিন, চন্দনাইশ : : চন্দনাইশ পৌরসভার  নয়াহাট এলাকায় পাকা ঘরের প্রধান ফটকের গ্রীলের তালা ভেঙ্গে প্রায় ৫০ লক্ষ টাকার ...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর