ই-পেপার | রবিবার , ১৪ এপ্রিল, ২০২৪
×

‘টর্চ বিয়ারার’ শান্তি পুরস্কারে ভূষিত হলেন চসিক মেয়র

মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরীকে ‘টর্চ বিয়ারার’ শান্তি পুরস্কারে ভূষিত করেছে আন্তর্জাতিক সংগঠন পিস রান। আজ সোমবার দুপুরে টাইগারপাসস্থ চসিক অস্থায়ী নগর ভবন সম্মেলন কক্ষে সংগঠনটির একটি দল এ পুরস্কার নগর পিতাকে হস্তান্তর করে।

প্রতিনিধি দলের সাথে আলাপকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, বর্তমানে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধসহ মধ্যপ্রাচ্যে প্রতিদিন যুদ্ধে যে অসংখ্য মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে তা বন্ধ করতে প্রয়োজন শানিÍর বাণীর প্রতি অগাধ আস্থা ও বিশ^াস। বর্তমান বিশ্বে চলমান যুদ্ধবিগ্রহ থামিয়ে শান্তির বিশ^ নির্মাণে প্রয়োজন পারস্পরিক যোগাযোগ ও উদারতা। চট্টগ্রাম জেলার বোয়ালখালী উপজেলার শাকপুরা গ্রামের চিম্ময় কুমার ঘোষ প্রতিষ্ঠিত চিম্ময় সেন্টার ঢাকার উদ্যোগে পিস রান বা শান্তির দৌড়ের এ আয়োজনের সাথে সম্পৃক্ত সকলকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আপনাদের এই প্রচেষ্টার প্রতি সংহতি জানিয়ে বলতে চাই শান্তি প্রতিষ্ঠায় যারা ভূমিকা রাখবে তারা নি:সন্দেহে মানুষের মনে স্থান পাবে।

এসময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন-আমেরিকান চিম্ময় স্টোরের পরিচালক ড. মহাতপা পালিত, ঢাকা বাংলাদেশের পরিচালক শান্তি শ্রী ম্যাকগ্রাথ ও শ্রী অরবিন্দ মাতৃ মন্দিরের সভাপতি শ্রী বিজয় শংকর চৌধুরী, চসিক ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুর মোস্তাফা টিনু, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আনজুমান আরা, রুমকি সেনগুপ্ত, মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাসেম প্রমুখ।

মেয়র আরো বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন একটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। কর্পোরেশনের নির্দিষ্ট কাজের বাহিরে অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, স্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। আমি মেয়র পদে দায়িত্ব গ্রহণের থেকে চট্টগ্রাম শহরকে একটি শান্তিপূর্ণ তিলোত্তমা নগরীতে পরিণত করতে কাজ করছি।

তিনি চিন্ময় ঢাকা সেন্টার এর উদ্যোগে পিস রান শান্তি দৌড়ে অংশগ্রহণকারীদের দীর্ঘায়ু ও সুস্থতা কামনা করেন। পরে মেয়র শান্তির মশাল জালিয়ে পিস রান বা শান্তির দৌড়ের উদ্বোধন করেন। উল্লেখ্য ১৯৮৭সালে পিস রান সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে শান্তির বার্তাবাহী আলোর মশালটি এ পর্যন্ত ১৫০টি‘র বেশি দেশ পরিভ্রমন করেছে। শান্তির মিছিলে যুক্ত হয়েছেন বিশে^র অগণিত মানুষ।