চট্টগ্রাম   বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১  

শিরোনাম

৩ বছরের মধ্যে নতুন কালুরঘাট সেতু, খরচ ২ হাজার কোটি টাকা

স্টাফ রিপোর্টার :    |    ০৩:২৯ পিএম, ২০২০-০৯-১৭

৩ বছরের মধ্যে নতুন কালুরঘাট সেতু, খরচ ২ হাজার কোটি টাকা

বোয়ালখালীর গোমদণ্ডী থেকে সিএনজি অটোরিকশায় অসুস্থ বাবাকে চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছিলেন শিক্ষক রবিউল হাসান। কালুরঘাট সেতুর পশ্চিম পাশে (শহর এলাকা) পৌঁছতে সময় লেগেছে দেড় ঘণ্টা।
অথচ যানজট ছাড়া ১০ মিনিটে এ তিন কিলোমিটার পথ পাড়ি দেওয়া যায়।
রবিউল হাসান বলছিলেন, কালুরঘাট সেতু আমাদের জন্য দুর্ভাগ্যের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেতু পার হতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা গাড়িতে বসে থাকতে হয়। শুধু সময়মতো চিকিৎসা না পাওয়ার কারণে অনেক অসুস্থ রোগী চমেক হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই মারা যান।
ঝুঁকি ও ভোগান্তি মাথায় নিয়ে দিনে প্রায় ১ লাখ লোক এভাবে সেতু পারাপার হচ্ছেন। এছাড়া বোয়ালখালী, পূর্ব পটিয়া, দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া, শহরের চান্দগাঁও ও মোহরা এলাকার প্রায় ২০ লাখ মানুষ এই সেতুর ওপর নির্ভরশীল।  
দীর্ঘদিন ধরে নতুন কালুরঘাট সেতুর জন্য আন্দোলন করছেন স্থানীয়রা। কিন্তু দাবি পূরণ হয়নি। শুধু ১০ বছর ধরে আশার বাণী শুনেছেন তারা।
তবে এবার বহু আকাঙ্ক্ষিত সেতুটি বাস্তবে রূপ পাচ্ছে। দক্ষিণ কোরিয়ার অর্থায়নে নতুন কালুরঘাট সেতু নির্মাণ করে দেবে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। সেতুর ব্যয় ধরা হয়েছে দুই হাজার কোটি টাকা। এরমধ্যে দেড় হাজার কোটি টাকা দক্ষিণ কোরিয়া ও বাকি ৫০০ কোটি সরকার অর্থায়ন করছে। সেতু নির্মাণের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে তিন বছর।
চট্টগ্রাম-দোহাজারী-কক্সবাজার রেললাইন প্রকল্পের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে ১২ সেপ্টেম্বর নগরের সার্কিট হাউজে রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন নতুন কালুরঘাট সেতুর নকশা তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে বলে জানিয়েছেন। এছাড়া এ সেতুর অর্থায়নে দক্ষিণ কোরিয়াও সম্মতি দিয়েছে বলে জানান তিনি।  
মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেছেন, যেহেতু অর্থায়ন মিলছে তাই এবার নতুন কালুরঘাট সেতু নির্মাণ হবেই। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এ বিষয়ে খোঁজ-খবর রাখছেন।  
রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ কালুরঘাট সেতু নিয়ে বিভিন্ন প্রস্তাবনা ও মতামত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত দ্য ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট কো-অপারেশন ফান্ডের (ইডিসিএফ) কাছে পাঠিয়েছে। তবে দক্ষিণ কোরিয়া কিছু টেকনিক্যাল বিষয়ের ওপর মতামত জানতে চেয়েছে।
ইডিসিএফের সিনিয়র লোন অফিসার ইয়েলি কিম স্বাক্ষরিত চিঠিতে রেলওয়ে কাম রোড ব্রিজ অথবা শুধু রেল সেতু নির্মাণের বিষয়ে রেলওয়ের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানতে চাওয়া হয়। পাশাপাশি সর্বনিম্ন স্ট্যান্ডার্ড নেভিগেশনাল ছাড়পত্র কত হবে, সিঙ্গেল নাকি ডাবল রেললাইন, লেন সংখ্যা, সেতুর টাইপ (এক্সট্রা ডোজড/ট্রাশ), রেলওয়ে গেজ (সিঙ্গেল/ডাবল), ব্রড গেজ বা মিটার গেজ এবং প্রকল্পের সম্ভাব্য আর্থিক ব্যয় সম্পর্কে কূটনৈতিক চ্যানেলে বিস্তারিত প্রস্তাব পাঠানোর অনুরোধ জানানো হয়। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ সেগুলো নিয়ে কাজ করছে।  
এছাড়া নতুন কালুরঘাট সেতুর টেকনিক্যাল বিষয়ের মধ্যে রয়েছে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে সেতুটির উচ্চতা নিয়ে আপত্তি। রেলওয়ের প্রস্তাবিত নকশায় সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে সেতুর উচ্চতা ধরা হয়েছে সাড়ে ৭ মিটার। তবে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে সেতুর উচ্চতা ১২ মিটার করার শর্ত দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।
ইতোমধ্যে উচ্চতা বৃদ্ধির বিষয়ে ছয় সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে রেলওয়ে। কমিটি সরেজমিন পরিদর্শন শেষে প্রতিবেদন জমা দিলে বিআইডব্লিউটিএ’র সঙ্গে বসে বিষয়টি মীমাংসা করা হবে। তাদের শর্ত পূরণ করে নকশা তৈরির কাজও করছে রেলওয়ে।
বাংলাদেশ রেলওয়ের পরিচালক (প্রকিউরমেন্ট) মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, আমরা সেতুটি দুই লাইন করতে চাচ্ছিলাম। দুইটি রেল, দুইটি রোড। কিন্তু এভাবে করলে সেতুটি অনেক বড় হয়ে যাবে বলে জানিয়েছে দ্য ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট কো-অপারেশন ফান্ড।
‘তারা সেতুতে একটা রেল আর দুইটি রোড করতে বলেছে। তাহলে সেতুটি একটু ছোট হবে। খরচও কম হবে। এসব বিষয় নিয়ে আমরা চিন্তা-ভাবনা করছি। তাদের পরামর্শ ও আমাদের মতামতগুলো পাঠালেই তারা সেতু নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করে দেবে। ’

রিটেলেড নিউজ

রাঙ্গুনিয়া বেতাগীতে তথ্যমন্ত্রী'র পক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ 

রাঙ্গুনিয়া বেতাগীতে তথ্যমন্ত্রী'র পক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ 

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি : : করোনার এই মহামারিতে গত বছরের ন্যায় এ বছরও তথ্যমন্ত্রী পক্ষে হয়ে সৈয়দ মোহাম্মদ আবুল মনসুর মেম্...বিস্তারিত


 চন্দনাইশসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের  ৬০ গ্রামে ঈদ বৃহস্পতিবার 

 চন্দনাইশসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের  ৬০ গ্রামে ঈদ বৃহস্পতিবার 

মোহাম্মদ কমরুদ্দিন, চন্দনাইশ : :  সাউদিআরবহ বিভিন্ন আরব দেশগুলোর সাথে মিল রেখে  রোজা ও ঈদ পালন করেন  দক্ষিণ চট্টগ্রামের চন্দনা...বিস্তারিত


বকেয়া সম্মানী চান তিন পার্বত্য জেলার উপজেলা চেয়ারম্যানরা

বকেয়া সম্মানী চান তিন পার্বত্য জেলার উপজেলা চেয়ারম্যানরা

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি : : বকেয়া সম্মানী, ভ্রমণ ভাতাসহ বিভিন্ন ভাতা পাওয়ার দাবী জানিয়েছেন রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবান তিন ...বিস্তারিত


খাগড়াছড়িতে তামাক নয়, ভুট্টা চাষে জীবন ফেরাতে চান সাধারন কৃষকরা

খাগড়াছড়িতে তামাক নয়, ভুট্টা চাষে জীবন ফেরাতে চান সাধারন কৃষকরা

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : :   খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার ৯টি উপজেলাতে তামাক নয়, ভুট্টা চাষে জীবন ফেরাতে চান সাধারন কৃষকরা।  ...বিস্তারিত


লোহাগাড়ায় ঘরের দেয়ালচাপা পড়ে প্রাণ গেল মালিকের

লোহাগাড়ায় ঘরের দেয়ালচাপা পড়ে প্রাণ গেল মালিকের

লোহাগাড়া প্রতিনিধি : : লোহাগাড়ায় ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে একজন মারা গেছে। মঙ্গলবার দুপুরে ঘরের দেয়াল ভাঙ্গার সময় উপজেলার বড়হ...বিস্তারিত


লোহাগাড়া আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ইফতার ও আলোচনা সভা

লোহাগাড়া আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ইফতার ও আলোচনা সভা

লোহাগাড়া প্রতিনিধি : : লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে ইফতার ও আলোচনা সভা সোমবার উপজেলা সদরের সিটিজে...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

আসন্ন পটিয়া পৌর নির্বাচনে দল চাইলে মেয়র পদে প্রার্থী হবেন তৌহিদুল আলম

আসন্ন পটিয়া পৌর নির্বাচনে দল চাইলে মেয়র পদে প্রার্থী হবেন তৌহিদুল আলম

পটিয়া প্রতিনিধি : : বাংলাদেশ ফ্রেশ ফ্রুটস ইমপোর্টার্স এসোসিয়েশনের কেন্দ্রিয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক পটিয়া ...বিস্তারিত


আনোয়ারায় দলীয় কোন্দলের জেরে ছাত্রলীগ কর্মি হত্যাকাণ্ডে ফাসানো হচ্ছে নিরীহ পথচারীকে

আনোয়ারায় দলীয় কোন্দলের জেরে ছাত্রলীগ কর্মি হত্যাকাণ্ডে ফাসানো হচ্ছে নিরীহ পথচারীকে

আনোয়ারা প্রতিনিধি : : আনোয়ারায় দলীয় কোন্দলের জেরে ছাত্রলীগ কর্মি হত্যাকাণ্ডে ফাসানো হচ্ছে নিরীহ পথচারী মহিউদ্দিন ...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর