শিরোনাম :


বিষয় :

প্রাইভেট কারে ৫শ’ লিটার মদ, অতঃপর ধরা বায়েজিদে


২১ মে, ২০২৪ ৩:৫০ : অপরাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার : চট্টগ্রামে রাঙ্গুনিয়া থেকে প্রাইভেট কার নিয়ে শহরে আসছিলেন সাজ্জাদ হোসেন (২৩)। তবে সে একা নয়; তার ওই গাড়িতে ছিল চোলাই মদও। এমন খবর জানতে পেরে অভিযান চালায় বায়েজিদ থানা পুলিশ। অভিযানে গাড়ি তল্লাশি করে মিলে ৫০০ লিটার চোলাই মদ। পরে তাকে গ্রেপ্তারের পাশাপাশি চোলাই মদ ও পরিবহন কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেট কার জব্দ করে পুলিশ। সোমবার (২০ মে) ১০টার দিকে বায়েজিদ বোস্তামি থানাধীন হাজীপাড়া সৈয়দ বাড়ীস্থ আশেকানে আউলিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসা এতিমখানা ও হেফজখানার মাঠ থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার সাজ্জাদ হোসেনের বাড়ি চট্টগ্রামের দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার কোদলা ইউনিয়ন পরিষদে। তিনি ওই ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ফজল মেম্বারের বাড়ির মৃত নূর আলমের ছেলে। বায়েজিদ বোস্তামী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সঞ্জয় কুমার সিনহা জানান, একটি প্রাইভেট কারযোগে রাঙ্গুনিয়া থেকে চোলাই মদ নিয়ে শহরের দিকে আসছে। এমন খবরে সোমবার রাতে বায়েজিদের ওয়াজেদিয়া মোড়ে অস্থায়ী চেকপোস্ট বসানো হয়। ৯টার দিকে একটি প্রাইভেট কারকে সিগন্যাল দিলে চালক দ্রুতগতিতে গাড়ি চালিয়ে অক্সিজেন নয়ারহাট এলাকার দিকে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ তার পিছন পিছন ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে হাজীপাড়া সৈয়দ বাড়ীস্থ আশেকানে আউলিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসা এতিমখানা ও হেফজখানার মাঠে গাড়ি থামিয়ে চালক পালানোর সময় স্থানীয়দের সহায়তা তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার আসামি জানায়, অধিক মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্যে এসব চোলাইমদ পাবর্ত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে সংগ্রহ করে শহরের বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে। তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামির বিরুদ্ধে নগরের কোতোয়ালী থানা এবং হালিশহর থানায় ছিনতাই ও ডাকাতির প্রস্তুতি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি সঞ্জয় কুমার সিনহা।

আরো সংবাদ