ই-পেপার | রবিবার , ১৪ এপ্রিল, ২০২৪
×

সবুজ পল্লী ও প্রত্যাশা সমিতির কোটি টাকা অত্মসাতের প্রতিবাদে ভুক্তভোগীদের মানববন্ধন

চটগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানা এলাকায় সবুজ পল্লী শ্রমজীবি সমবায় সমিতি ও প্রত্যাশা কর্মজীবি সমবায় সমিতির নামে সংগঠনের প্রায় এক কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মানববন্ধন করেছে সমিতির ভুক্তভোগী সদস্যরা। আজ বুধবার (১৭ মে)’ ২৩ ইং, সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে সমিতির সভাপতি ও মূল কর্ণধার কাজী আলতাফ হোসেনের বিরুদ্ধে এই মানববন্ধন করেন তারা।

মানববন্ধে সমিতির ভুক্তভোগী সদস্যরা জানান, নিজেদের আর্থিক কল্যাণে এককালীন এক হাজার টাকা ও বাসস্থান বাবদ প্রতিজনের কাছ থেকে ৩০ হাজার, ৫০ হাজার ও ৭০ হাজার টাকা সঞ্চয় জমা রাখার নিয়মে একটি সমবায় সমিতি করেন তারা। বাস্তুহারা, দিনমজুরদের অংশগ্রহণ করা হয় এই সমিতিতে। এতে প্রাথমিকভাবে সদস্য করা হয় পাঁচশতাধিকেরও মানুষকে ।

২০১৬ সাল থেকে এই সমিতি কার্যক্রম শুরু করে। কিছুদিন পর কয়েকজনকে নিয়ে উপদেষ্টা পরিষদ রেখে সংগঠনের কার্যকরী পরিষদের সভাপতি করা হয় বর্তমান আকবরশাহ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আলতাফ হোসেনকে। নতুন কমিঠি গঠন হওয়ার পর সমিতির টাকায় সদস্যদের জন্য জায়গা ক্রয় করার কথা থাকলেও, এ পর্যন্ত কোন জায়গায় ক্রয় করা তো দূরের কথা সংগঠনের অফিস এর অস্তিত্বও রাখেনি এই সভাপতি।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা আরো জানান, এই কাজী আলতাফ হোসেন সভাপতি হওয়ার কিছু দিন পর থেকে নিজের খেয়াল খুশি মতো কার্যক্রম চালিয়ে যান। তিনি নিজের মত করে এই সমিতি পরিচালনা করতে থাকেন প্রায় দশ বছর ধরে । এসব অন্যায় কাজের বিষয়ে সদস্যদের চাপের মুখে পড়ে কয়েকবার বৈঠকে বসলেও তিনি সদস্যদের টাকা ফেরত দিতে অস্বীকার করেন। এরপর সমিতির সদস্যদের অনুরোধে গন্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে বৈঠকে তিনি সমিতির হিসাব বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য কিছু দিন সময় নেন।

পরে আর সেই হিসাব দেননি। ইতোমধ্যে এসব বিষয়ে আইনশৃংখলা বাহিনী ও স্থানীয় সংসদ সদস্যের কাছে লিখিতভাবে জানানো হয়। কিন্তু তাতেও কোনো ফল পাওয়া যায়নি। বাধ্য হয়ে আজ তারা মানববন্ধন করেন।

মানববন্ধনে প্রত্যাশা সমিতির বর্তমান সভাপতি রুহল আমিন ড্রাইভার অভিযোগ করে বলেন,'কাজী আলতাফ হোসেন আমাকে লক্ষ লক্ষ টাকার লোভ দেখিয়ে জোর করে প্রত্যাশার সভাপতি বানিয়েছে। আমি লেখাপড়া কিছুই জানিনা শুধু চেক এ স্বাক্ষর করি, তিনি আমার সাথে চরম প্রতারণা করেছে'।

তারা প্রেস ক্লাবের সামনে প্রায় এক ঘণ্টার মতো দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময় অন্যান্য ভুক্তভোগী সদস্যরাও বক্তব্য রাখেন। প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সমিতির সদস্য- বাদশা মিয়া, রুহুল আমিন ড্রাইভার, শাহ আলম, নুরুল হক, হাসিনা বেগম, মাইনুদ্দীন, মইনুল হক পিংকু, শাফিয়া খাতুন, কহিনুর বেগম, আয়েশা বেগমসহ, শতাধিক সদস্য।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত রিপোর্ট