ই-পেপার | শুক্রবার , ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
×

‘জীবন শুরু হতে পারে ফিফটিতেও’

গুণী নির্মাতা মোস্তফা সরোয়ার ফারুকীর ৫০তম জন্মদিন ছিল গতকাল। জন্মদিন উপলক্ষে মঙ্গলবার দিনগত রাতে তিনি ফেসবুকে কয়েকটি ছবি পোস্ট করেন। যাতে দেখা যাচ্ছে, তার স্ত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা, মেয়ে ইলহাম নুসরাত ফারুকীসহ কয়েকজন কেক কেটে জন্মদিন উদ্‌যাপন করছেন। ছবিগুলোর ক্যাপশনে তিনি লিখেন, সারাজীবন আমি বয়স গুনি নাই, গুনেছি ব্লেসিংস! আজকে আমার ৫০তম জন্মদিনে এসে তাই পেছন ফিরে নিজেকে একজন কৃতজ্ঞ মানুষই মনে হচ্ছে। সৃষ্টিকর্তার কাছে কৃতজ্ঞ পৃথিবী নামের এ গ্রহে এক চমৎকার জার্নির জন্য আমাকে নির্বাচিত করার জন্য। আমার জার্নিটা অন্য আরও কোটি রকম হতে পারতো! হতে পারতাম কীর্তনখোলা নদীর পাড়ের এক উদাসী রাখাল। কিংবা যাত্রা প্যান্ডেলের টিকিট চেকার। অথবা কোনো এক নির্জন স্কটিশ গ্রামের পাইপার। এর কোনোটাই ভালো বা খারাপ বলছি না। বলছি এই যে, বাংলাদেশের একজন গল্পকথক হয়েছি।

আমার সময়টাকে গল্পে ধরার চেষ্টা করছি, কতো মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি। এসবই একেকটা ব্লেসিংস। তিশার মতো একজন সঙ্গী পেয়েছি। এ জার্নিতে ইলহামের মতো একটা বেহেশতের টুকরা পেয়েছি। আমি তার কোন নিয়ামতকে অস্বীকার করবো? তিনি লেখেন, আমি যখন ছবি বানাতে শুরু করি, আমি তো পথ হারায়ে ঝরে যেতে পারতাম। কতো ঝড় গেছে! ভাষার ঝড়, অভিনয়ের ঝড়, এমনকি বিষয়ের ঝড়ও। একসময় ন্যাচারাল অভিনয় করাতে চাওয়াটা কতো আন-ন্যাচারাল ছিল। স্বাভাবিক সংলাপ লেখাটাও কতো বড় অপরাধ ছিল! আজকের বাংলাদেশি ভিজ্যুয়াল ল্যান্ডস্কেপের দিকে তাকালে সেসব দিন অবিশ্বাস্যই মনে হয়। জীবনের দুই-তৃতীয়াংশ পার করে দিয়েছি! ট্রেন যতদূর যাবে, চাইবো সেটা যেন মিনিংফুল জার্নি হয় আরও। এমনো হতে পারে, ছবি বানানোর পাশাপাশি দেখতে পারেন নতুন ভূমিকায়ও। কারণ জীবন শুরু হতে পারে ফিফটিতেও।