ই-পেপার | বুধবার , ৭ জুন, ২০২৩
×

রিয়ালের বিপক্ষে আজ অঘটন ঘটাতে পারবে চেলসি?

চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে চেলসি হেরেছে ২-০ গোলে। ওই ম্যাচটি ছিল রিয়ালের মাঠে। আজ চেলসির মাঠ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ফিরতি লেগে খেলতে এসেছে রিয়াল মাদ্রিদ। সেমিফাইনালে যেতে হলে আজ অঘটন ঘটাতে হবে চেলসিকে। অন্তত ৩ গোলের ব্যবধানে জিততে হবে। যা আপাতদৃষ্টিতে কিছুটা কঠিনই বটে।

তবে স্টামফোর্ডব্রিজে এসে আবেগী রিয়ালের কোচ কার্লো আনচেলোত্তি। রোমান আব্রামোভিচ চেলসি কেনার পর ভরসা রেখেছিলেন তার ওপর। আনচেলোত্তির হাত ধরেই ২০০৯-১০ মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগ, এফএ কাপ ও কমিউনিটি শিল্ডের শিরোপা জিতেছিল চেলসি। নতুন মালিক টড বোহেলি ক্লাব কেনার পর সেই চেলসিতে চলছে ঘোর অমানিশা। প্রিমিয়ার লিগে নেমে গেছে পয়েন্ট টেবিলের ১১ নম্বরে।

সেই আবেগ থেকেই আনচেলত্তি বলেন, ‘অবশ্যই আমি চেলসির সমর্থক। কারণ এখানে দুই বছর কোচিং করিয়েছি। আমার সময়ে কাজ করা অনেকে এখনো রয়েছে চেলসিতে। ওদের এই খারাপ সময়টা ব্যথিত করছে আমাকে। আশা করছি ল্যাম্পার্ড ঘুরে দাঁড়াতে সাহায্য করবে ওদের।’

গত মৌসুমের কোয়ার্টার ফাইনালে চেলসির মাঠে প্রথম লেগে করিম বেনজেমার হ্যাটট্রিকে ৩-১ গোলে জিতেছিল রিয়াল। ফিরতি লেগেও ৯৬ মিনিটে বেনজেমার লক্ষ্যভেদে সেমিফাইনাল নিশ্চিত হয়েছিল তাদের। এবারও কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ২-০ ব্যবধানে জেতা ম্যাচে একবার লক্ষ্যভেদ করেছিলেন এই ফরাসি। তিনি ছন্দে থাকায় থিবো কুর্তোয়া হুমকিই দিয়ে রাখলেন পুরনো ক্লাবকে, ‘চ্যাম্পিয়নস লিগের জন্য গোল জমা করে রেখেছে রিয়াল।’

চেলসির পিয়েরে এমেরিক অবামেয়াং, বেনোইত, মাদুইকরা খেলতে পারবেন না নিয়মের বেড়াজালে। তবে এনগোলো কন্তে, থিয়াগো সিলভাদের ফেরাটা বাড়তি শক্তি জোগাবে ল্যাম্পার্ডদের। রিয়াল মাদ্রিদ খেলবে পূর্ণশক্তি নিয়েই। শুধু ফেরলান্দ মেন্দি থাকতে পারছেন না আজ।

এ ছাড়া চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে আজ মুখোমুখি দুই ইতালিয়ান ক্লাব নাপোলি ও এসি মিলান। সিরি ‘এ’তে মিলানের চেয়ে ২২ পয়েন্টে এগিয়ে নাপোলি। তবে সিরি ‘এ’তে সর্বশেষ দেখায় মিলান জিতেছিল ৪-০ ব্যবধানে। এরপর চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে মিলানের জয় ১-০ গোলে।

আজ নেপলসের ফিরতি লেগে ড্র করলেও সেমিফাইনালের টিকিট পাবে মিলান। নক আউটের প্রথম লেগে ৪৪ বার জয়ের পর ৩৮ বারই পরের রাউন্ডে গেছে মিলান। এমন ইতিহাস নিশ্চিতভাবে আত্মবিশ্বাস জোগাবে তাদের। তবে ১৯৯৪-৯৫-তে লাসিও ছাড়া নাপোলিকে এক মৌসুমে তিনবার হারাতে পারেনি কেউ। মিলানের জন্যও তাই চ্যালেঞ্জটা সহজ নয়।